মুছাম্মৎ রোকেয়া আক্তার, কিশোরগঞ্জ জেলা বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় এক ইতালি প্রবাসীসহ দুই ভাই আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার (১১জুলাই) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার মাটিকাটা গ্রামে এ হামলার ঘটনাটি ঘটে। এসময় প্রতিপক্ষ স্থানীয় ছয়সূতী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সচিব সাফি উদ্দিন আহমেদ এর ৬ ছেলের হামলায় মাটিকাটা গ্রামের মৃত কুদ্দুস রুহুল আমিনের ছেলে ইতালি প্রবাসী আশরাফুল ইসলাম মিরন (৪৪) ও তার বড় ভাই মো. জহুরুল আমিন খোকন (৭০) আহত হয়েছে বলে অভিযোগ সূত্রে জানা যায়।

হামলায় আহত ইতালি প্রবাসী আশরাফুল ইসলাম মিরন (৪৪) অভিযোগ করে বলেন, তিনি ইতালি থেকে ছুটিতে বাড়ি আসিয়া প্রায় ৪ মাস পূর্বে তার পৈত্রিক ও ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে একটি তিনতলা বিশিষ্ট ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করেন। ভবনের প্রায় অর্ধেক কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর গত ১৭ জুন- ২০২২ ইং তারিখ শুক্রবার বিকালে তার প্রতিবেশী মৃত চান্দ মিয়ার ছেলে স্থানীয় ছয়সূতী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সচিব সাফি উদ্দিন আহমেদ (৭৫), তার ছেলে মো. মাজহারুল হক জিতু (৫২) ও মো. রফিকুল ইসলাম টিটু (৪৮), মৃত মো. হাবিবুর রহমানের ছেলে মো. মিজানুর রহমান (৫৭) ও মো. ইমরানুর রহমান পাপ্পু (৪৭) মিলে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে প্রবাসী আশরাফুল ইসলাম মিরন এর নির্মাণাধীন ভবনে অনাধিকার প্রবেশ করিয়া ভবণ নির্মাণে বাঁধা নিষেধ দেয়। বাঁধা নিষেধ দেওয়ার কারণ জানতে চাইলে তারা ওই প্রবাসীকে বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি দিয়ে বলেন, এখানে তাদের জায়গা আছে। ভবন নির্মাণ কাজ বন্ধ না করলে ওই প্রবাসীকে জীবন দিয়ে তার মাশুল দিতে হবে। এ ঘটনায় বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকাসহ অনলাইন নিউজ ভার্সন ও নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় প্রতিপক্ষ ক্ষিপ্ত হয়ে বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি দেওয়ায় ইতালি প্রবাসী আশরাফুল ইসলাম মিরন সোমবার (১১জুলাই) সকাল ১০ টার দিকে তার বড় ভাই
মো. জহুরুল আমিন খোকনকে নিয়ে কুলিয়ারচর থানায় যাওয়ার পথে তাদের বাড়ির সামনে রস্তায় প্রতিপক্ষ সাফি উদ্দিন আহমেদ এর ছেলে মাজহারুল হক জিতু, রফিকুল ইসলাম টিটু, সিরাজুল ইসলাম নন্টু, আশরাফুল ইসলাম, আল-আমিন ও আনোয়ারুল ইসলাম পিন্টু মিলে তাদের দুই ভাইয়ের উপর হামলা করে তাদের মারধোর করে। পরে হামলায় আহত ওই প্রবাসী ও তার বড় ভাই কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে চিকিৎসা নেন। বর্তমানে হামলাকারীরা ওই প্রবাসীকে বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি দিয়ে আসছে বলে জানান প্রবাসী আশরাফুল ইসলাম মিরন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.