মোঃ ইকবাল মোরশেদ স্টাফ রিপোর্টার।

গ্রাহকের ৩৮ লাখ টাকা আত্মসাৎ করায়
নোয়াখালীতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় বরখাস্তকৃত পোস্ট মাস্টার শ্রীবাস চন্দ্র দে এর নয় বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।
একই সঙ্গে অভিযুক্তের ২৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নোয়াখালী বিশেষ জজ আদালতের বিচারক এ এন এম মোরশেদ খান এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত শ্রীবাস চন্দ্র দে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার রাধাপুর গ্রামের নারায়ণ চন্দ্র দের ছেলে।
তিনি চন্দ্রগঞ্জের দত্তপাড়া উপ-ডাকঘরের পোস্ট মাস্টার ছিলেন।
নোয়াখালী দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মোঃ আবুল কাশেম রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আসামি শ্রীবাস চন্দ্র দে কর্মরত অবস্থায় ছয়জন আমানতকারীর ৩৮ লাখ ২৭ হাজার টাকা পাস বইয়ে লিপিবদ্ধ করলেও সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেন।
এ ঘটনায় ২০১৯ সালের ১৩ মে লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানায় মামলা করা হয়। পরে বিশেষ মামলায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় নোয়াখালীর সহকারী পরিচালক সুবেল আহমেদ গত বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি তদন্ত শেষে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

পিপি আরও বলেন, রায়ে আসামি শ্রীবাস চন্দ্র দে’কে দোষী সাব্যস্ত করে ১৮৬০ সালের পেনাল কোডের ৪০৯ ধারায় পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ২৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ড, ৪২০ ধারায় এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা
এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। রায়ের সময় আসামি শ্রীবাস চন্দ্র দে আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে সাজা পরোয়ানামূলে তাকে নোয়াখালী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!