মোঃ ইকবাল মোরশেদ স্টাফ রিপোর্টার।

শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটরটি চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার লক্ষ্যে যোগ্য, দক্ষ ও মেধাবী জনশক্তি সৃষ্টিতে যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে।
ইনকিউবেটরটি উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে ২৫০ জন উদ্যোক্তা, ফ্রিল্যান্সার ও সম্ভাবনাময় স্টার্টআপ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে প্রযুক্তিগত সেবা ও পরামর্শ এবং আর্থিক সহযোগিতা দিয়ে তাদের ব্যবসা ক্রমবিকাশে সহায়তা প্রদান করবে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ।
আজ চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামাল স্মরণে খচিত শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর, শেখ জামাল ও রোজী জামাল ডরমেটরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভার্চুয়ালি উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে যাত্রা শুরু হয়েছে।
ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ও বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের তত্তাবধানে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) ১১৩ কোটি ৮৭ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ক্যাম্পাসের ৪.৭ একর জায়গার উপর দেশের প্রথম আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন করা হলো।

শেখ কামাল আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর প্রকল্পের আওতায় ৫ হাজার বর্গফুট করে ৫০ হাজার বর্গফুট আয়তনের ১০ তলাবিশিষ্ট একটি ইনকিউবেশন ভবন এবং ৩৬ হাজার বর্গফুটের ৬ তলাবিশিষ্ট মাল্টিপারপাস প্রশিক্ষণ ভবন তৈরি করা হয়েছে।
ইনকিউবেশন ভবনে রয়েছে- স্টার্টআপ জোন, ইনোভেশন জোন, ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিক জোন, ব্রেইনস্ট্রর্মিং জোন, এক্সিবিশন সেন্টার, ই-লাইব্রেরি জোন, ডাটা সেন্টার, রিসার্চ ল্যাব, ভিডিও কনফারেন্সিং কক্ষ ও সভাকক্ষ।
এছাড়া ব্যাংক ও আইটি ফার্মের জন্য পৃথক কর্ণার, অত্যাধুনিক সাইবার ক্যাফে, ফুড কোর্ট, ক্যাফেটেরিয়া, রিক্রিয়েশন জোন, মেকার স্পেস, ডিসপ্লে জোন ও মিডিয়া কাভারেজ জোনও আছে।
অন্যদিকে মাল্টিপারপাস প্রশিক্ষণ ভবনে রয়েছে ২৫০ জনের ধারণক্ষমতাসম্পন্ন সুসজ্জিত অডিটোরিয়াম এবং ৫০ জনের ধারণক্ষমতাসম্পন্ন পৃথক ৪টি কম্পিউটার ল্যাব কাম সেমিনার কক্ষ।
শেখ জামাল ও রোজি জামালের নামে ৪ তলাবিশিষ্ট নারী পুরুষের জন্য পৃথক দুটি আবাসিক ডরমিটরি ভবন । স্থাপন করা হচ্ছে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) ল্যাব, একটি মেশিন লার্নিং ল্যাব, একটি অপটিক্যাল ফাইবার ব্যাকবোন,
একটি সাব-স্টেশন
ও সোলার প্যানেল।উদ্বোধন উপলক্ষে চট্টগ্রাম প্রান্তে সংযুক্ত ছিলেন চট্টগ্রাম ৬ আসনের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের উপচার্য্য ডক্টর মোঃ রফিকুল আলম, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আশরাফ উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান,

রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক
ও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ এবং উপকার ভোগীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.