মোঃ ইকবাল মোরশেদ স্টাফ রিপোর্টার।

নোয়াখালী জেলার চাটখিল পৌরসভার অলিতে গলিতে কিশোরগ্যাংয়ের তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এসব কিশোরগ্যাং সদস্যরা স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় পড়ুয়া ছাত্রীদের ইভটিজিং এর ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত রয়েছে। তাছাড়া কিশোর গ্যাংয়ের অনেক সদস্যের বিরুদ্ধে মাদকের সাথে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে।

সরোজমিনে খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, চাটখিল পৌরসভার দক্ষিণ বাজারে রয়েছে একটি কিশোরগ্যাং গ্রুপ সোনালী ব্যাংকের ছাদ ও এর আশেপাশের ছাদে বিকাল ও সন্ধ্যার পরে কিশোরগ্যাংয়ের সদস্যদের উপস্থিতিতে জমজমাট হয়ে উঠে।

চাটখিল আলিয়া মাদ্রাসা রোডের আজিজিয়া লাইব্রেরি পূর্ব পাশের কনফেকশনারী দোকান ঘেঁষে গড়ে উঠেছে কিশোরগ্যাংয়ের তৎপরতা। মাদ্রাসা ও স্কুলে পড়ুয়া ছাত্রীদের ইভটিজিংসহ নানারকম অপকর্মে জড়িত রয়েছে তারা।

চাটখিল পৌরসভার হাসপাতাল রোডের মহিলা কলেজ ও গার্লস স্কুলের সামনে রয়েছে একটি কিশোরগ্যাং গ্রুপ। দোকান ও রাস্তার উপর এদের আড্ডা। স্কুল-কলেজ চলাকালীন সময় কিশোরগ্যাং এর সদস্যরা ঘুরাঘুরি করে।

মহিলা কলেজ ও গার্লস স্কুল ছুটির পর এরা মেয়েদের ইভটিজিং করে।

চাটখিল খিলপাড়া রোডের সেন্ট্রাল হাসপাতালের আশেপাশে রয়েছে একটি শক্তিশালী কিশোরগ্যাং।

চাটখিল প্রধান সড়কের উত্তর পাশে, আজিজ সুপার মার্কেটের পশ্চিমে কৃষি গুদামের ছাদে রয়েছে কিশোরগ্যাংয়ের একটি গ্রুপ।

এরা মাদক ব্যবসা ও সেবনের সাথে সরাসরি জড়িত বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।

চাটখিল বদলকোর্ট রোড সেন্টার পয়েন্ট থেকে পালোয়ান বাড়ি পর্যন্ত কিশোরগ্যাংয়ের তৎপরতা লক্ষণীয়। মাগরিবের পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত এদের উৎপাতে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী।

চাটখিল পাল্লা রোডের দারোগা বাড়ি থেকে মিজি বাড়ি পর্যন্ত কিশোরগ্যাংয়ের সদস্যদের অপকর্মে চলে।
অপ্রাপ্ত বয়সে এসব কিশোরগ্যাংয়ের সদস্যরা অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। এখনই এসব কিশোরদের ফেরানোর না গেলে, অদূর ভবিষ্যতে সমাজে বিশৃঙ্খলা বৃদ্ধির সম্ভাবনা বিদ্যমান।

এ বিষয়ে চাটখিল চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ইতিমধ্যে কিশোরগ্যাংয়ের সদস্যদের বিরুদ্ধে আমরা একটি মামলা নিয়েছি।

কিশোরগ্যাংয়ের সদস্যদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
বললেন ওসি মোঃ গিয়াস উদ্দিন , চাটখিল থানাকে সকল অপরাধমুক্ত করার জন্য আমরা বিশেষ অভিযান শুরু করেছি।

তিনি আরো বলেন আগামী কয়েকদিনের মধ্যে চাটখিলবাসী এর সুফল পাবে ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.