হাকিকুল ইসলাম খোকন ,যুক্তরাষ্ট্র সিনিয়র প্রতিনিধি:
জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া (৭৬)আর নেই। নিউইয়র্কের মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার ,২২ জুলাই স্থানীয় সময় বেলা ৪টার (বাংলাদেশ সময় রাত ২টা) দিকে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
মরহুমের বড় মেয়ে ফাহিমা রাব্বী রিটা সংবাদ সংস্হা বাপসনিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
মৃত্যুকালে তিনি তিন মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মৃত্যুর সময় হাসপাতালে বড় মেয়ে রিটা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রয়াত ডেপুটি স্পিকারের একান্ত সচিব তৌফিকুল ইসলাম।
ফজলে রাব্বী মিয়া দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন বলে জানা গেছে।খবর বাপসনিউজ।
১৯৪৬ সালে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বটিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন ফজলে রাব্বী মিয়া। অষ্টম শ্রেণির ছাত্র থাকা অবস্থায় ১৯৫৮ সালে পাকিস্তানের সামরিক শাসক আইয়ুব খান মার্শাল ল জারি করলে তার বিরোধিতার আন্দোলনে নেমে প্রথম আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন তিনি।
রাজনৈতিক সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ১১ নম্বর সেক্টরের যোদ্ধা হিসেবে অংশ নেন প্রয়াত ফজলে রাব্বী মিয়া।
তিনি ১৯৮৬ সালের তৃতীয়, ১৯৮৮ সালের চতুর্থ, ১৯৯১ সালের পঞ্চম ও ১২ জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ আসন থেকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সবশেষ ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসন থেকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে সপ্তমবারের মতো জয়ী হন তিনি।
১৯৯০ সালে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন তিনি। দশম সংসদ থেকে তিনি ডেপুটি স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
২০২০ সালে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় সদ্য প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম মারা যান। প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি এডভোকেট আব্দুল হামিদ,আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোক প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু এমপি,তোফায়েল আহমদ এমপি,নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি,যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক এমএ সালাম,আওয়ামী লীগনেতা মাহবুবুর রহমান মিলন,হেলালুল করিমসহ আরও অনেকে। প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার প্রয়ানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ এবং বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন সর্বজনাব সৈয়দ বসারত আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. প্রদীপ রন্জন কর, হাজী শফিকুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মহসীন আলী, সিনিয়র সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন, ড. খন্দকার মনসুর, ড. সৈয়দ আবু হাসনাত, রমেশ চন্দ্র নাথ, তোফায়েল চৌধূরী, মোহাম্মদ হানিফ, বদরুল হোসেন খাঁন, আইরিন পারভিন, আবদুর রহিম বাদশা,চন্দন দও, প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, এ্যাডভোকেট শাহ মো: বখতিয়ার আলী, মনসুর খান, এম এ করিম জাহাঙ্গীর, কাজী কয়েছ আহমেদ, ডাঃ এ বাতেন, মিসবাহ আহমদ, ফরিদ আলম, শরিফ কামরুল আলম হীরা, সাংবাদিক হেলাল মাহমুদ,ওসমান গনি,বিশসজিৎ সাহা,নাসিম পারভীন পারু,সুহাস বডুয়া হাসি,শরাফ সরকার, কায়কোবাদ খাঁন, রেজাউল করিম চৌধুরী, আজাহারুল ইসাম লিটন, বীর মুক্তিযোদ্ধা কামরুল হাসান চৌধূরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত আকবর রীচি, বীর মুক্তিযোদ্ধা খুরশীদ আনোয়ার বাবলু, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাঈদুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন হিরু ভূইয়া, গোলাম কুদ্দুস, জালালউদ্দিন জলিল, মোহম্মদ আকতার হোসেন, মঞ্জুর চৌধূরী, খসরুল আলম, রুমানা আকতার, শেখ জামাল হোসেন, আবুল কাসেম ভূইয়া, সিরাজুল ইসলাম সরকার, ইফজাল চৌধূরী, টি মোল্লা, উৎফত মোল্লা, শাহরিয়ার শরীফ,জাহাংগীর কবির,নাদের আলী মাষ্টার, নুরে আজম বাবু, মোঃ জামাল বস্ক, খন্দকার মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন মোল্লা, আতাউর রহমান তালুকদার, শহিদুল ইসলাম, ফরিদা আরভি, একে চৌধূরী, হেলেমউদ্দিন, নূরুল ইসলাম, মোঃ আলীমউদ্দিন, শাহিন কামালী, আজাদুল কবির, রবিউল ইসলাম, শহেব আহমদ, জাহাঙ্গীর আলম চৌধূরী, মাসুদুর রহমান, অমিত হাসান মুরাদ, নুর হোসেন ফরহাদ, আজমান আলী, আলীম উদ্দিন, মামুন হোসাইন, শুপি চৌধূরী, লায়েক আহমদ, মহিবুর রহমান, আমিনুল মোর্শেদ হক, সাঈদউল্লা সাঈদ, সাহে আলম ভূইয়া, মীর কাসেম, মোশারফ হাওলাদার, সাঈদ আলী, আকবর আলী, নূরুল আমীন ভূইয়া, সাফায়েত খান, কোহিনুর বেগম ও শারমিন তালুকদার প্রমুখ।
সর্বজনাব সৈয়দ বসারত আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. প্রদীপ রন্জন কর, হাজী শফিকুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মহসীন আলী, সিনিয়র সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন, মোস্তাইন দারা বিল্লাহ, ড. খন্দকার মনসুর, ড. সৈয়দ আবু হাসনাত, রমেশ চন্দ্র নাথ, তোফায়েল চৌধূরী, মোহাম্মদ হানিফ, বদরুল হোসেন খাঁন, আইরিন পারভিন, আবদুর রহিম বাদশা,চন্দন দও, প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, এ্যাডভোকেট শাহ মো: বখতিয়ার আলী, মনসুর খান, এম এ করিম জাহাঙ্গীর, কাজী কয়েছ আহমেদ, ডাঃ এ বাতেন, মিসবাহ আহমদ, ফরিদ আলম, শরিফ কামরুল আলম হীরা, সাংবাদিক হেলাল মাহমুদ,ওসমান গনি,বিশসজিৎ সাহা,নাসিম পারভীন পারু,সুহাস বডুয়া হাসি,শরাফ সরকার, কায়কোবাদ খাঁন, রেজাউল করিম চৌধুরী, আজাহারুল ইসাম লিটন, বীর মুক্তিযোদ্ধা কামরুল হাসান চৌধূরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত আকবর রীচি, বীর মুক্তিযোদ্ধা খুরশীদ আনোয়ার বাবলু, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাঈদুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন হিরু ভূইয়া, গোলাম কুদ্দুস, জালালউদ্দিন জলিল, মোহম্মদ আকতার হোসেন, মঞ্জুর চৌধূরী, খসরুল আলম, রুমানা আকতার, শেখ জামাল হোসেন, আবুল কাসেম ভূইয়া, সিরাজুল ইসলাম সরকার, ইফজাল চৌধূরী, টি মোল্লা, উৎফত মোল্লা, শাহরিয়ার শরীফ,জাহাংগীর কবির,নাদের আলী মাষ্টার, নুরে আজম বাবু, মোঃ জামাল বস্ক, খন্দকার মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন মোল্লা, আতাউর রহমান তালুকদার, শহিদুল ইসলাম, ফরিদা আরভি, একে চৌধূরী, হেলেমউদ্দিন, নূরুল ইসলাম, মোঃ আলীমউদ্দিন, শাহিন কামালী, আজাদুল কবির, রবিউল ইসলাম, শহেব আহমদ, জাহাঙ্গীর আলম চৌধূরী, মাসুদুর রহমান, অমিত হাসান মুরাদ, দেলওয়ার মানিক,জাহাংগীর কবির,কামাল হোসেন ,নুর হোসেন ফরহাদ, আজমান আলী, আলীম উদ্দিন, মামুন হোসাইন, শুপি চৌধূরী, লায়েক আহমদ, মহিবুর রহমান, আমিনুল মোর্শেদ হক, সাঈদউল্লা সাঈদ, সাহে আলম ভূইয়া, মীর কাসেম, মোশারফ হাওলাদার, সাঈদ আলী, আকবর আলী, নূরুল আমীন ভূইয়া, সাফায়েত খান, কোহিনুর বেগম ও শারমিন তালুকদার প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.