img 20231209 wa0019

নিজস্ব প্রতিবেদক,

সাম্প্রতিক সময়ে গাড়ী পোড়ানো ও হত্যা মামলায় সম্পৃক্ততার অভিযোগে গ্রেফতার হন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার শাহজাহান ওমর। কিন্তু কয়েকদিনের মধ্যেই গ্রেফতার অবস্থায় সরকারের একটি উচ্চ মহলের সাথে সমঝোতা করে জামিন নিয়ে মুক্ত হয়ে এক দিনের ব্যাবধানে নৌকা মার্কার ঘোষিত প্রার্থীকে বসিয়ে দিয়ে ঝালকাঠী-১ আসনে নৌকার প্রার্থী হয়ে আসেন ব্যারিষ্টার শাহজাহান ওমর। যেখানে বিএনপি মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দিতে দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত আন্দোলন সংগ্রাম করে যাচ্ছে সেখানে কেন্দ্রীয় কমিটির প্রবীণ নেতা ৪২ বছর বিএনপির রাজনীতি করেও হঠাৎ বিএনপি ছেড়ে নৌকায় ওঠা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ পেয়ে প্রকাশ্যে রাইফেল নিয়ে সমাবেশ করায় দেশব্যাপী কঠোরভাবে সমালোচিত হচ্ছেন শাহজাহান ওমর।

এদিকে আগামীদিনে দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি হলে ঝালকাঠি বিএনপির নেতৃত্ব বিশেষ করে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী কে হবে তা নিয়ে রয়েছে ব্যাপক আলোচনার ঝড়। এই মুহুর্তে ঝালকাঠিতে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে রাজনীতি মনা প্রতিটি মানুষের আলোচনায় আছেন টকশোর পরিচিত আলোচক, জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির দেশী ও প্রবাসী কর্মী সমর্থকদের প্রতিকূল অবস্থায় সহায়ক, ঝালকাঠি থেকে ২০১৮ সনে বিএনপির মনোনয়ন চাওয়া তরুন রাজনীতিবীদ ড. ফয়জুল হক।

ড. ফয়জুল হক বাংলাদেশী সকল নাগরিকের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় বক্তা ও সরকারের অনিয়ম নিয়ে কঠোর সমালোচক। মালয়েশিয়ার ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি সম্পন্ন করে একই বিশ্ববিদ্যালয়ে পোষ্ট ডক্টোরাল ফেলো করছেন ড. ফয়জুল হক। তিনি শহীদ জিয়া পরিবার, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

মুঠোফোনে ড. ফয়জুল হকের সাথে যোগাযোগ করলে,এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান (বীর উত্তম) স্বাধীনতার ঘোষক, খালেদা জিয়ার হাতে স্বৈরাচার এরশাদের পতন হওয়া এবং তারেক রহমানের নেতৃত্বে ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে হবে তাই এই দলই তার কাছে মূল্যবান ও প্রিয়।এছাড়াও তিনি বলেন প্রতিটি মানুষেরই আলাদা আলাদা পছন্দ থাকে সেখান থেকে বলতে গেলে ছোট বেলা থেকেই জিয়া পরিবারের প্রতি আমার একটা ভালোলাগা ভালোবাসা তৈরি হয়।

উল্লেখ্য ড. ফয়জুল হক বিখ্যাত ধর্ম প্রচারক হযরত কায়েদ সাহেব হুজুর রহ. এর দৌহিত্র।সে হিসেবে ঝালকাঠিতে রয়েছে তার সার্বজনীন মানুষের মাঝে আলাদা একটি গ্রহনযোগ্যতা।পরিবারে স্ত্রী ড. কাজী আফিফা খাতুন সন্তান জিয়াউল হক ও আফিয়া জাহিন হক মাহাকে নিয়ে মালয়েশিয়া অবস্থান করছেন তিনি। ছাত্র জীবনে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল থেকে রাজনীতিতে হাতে খড়ি ড. ফয়জুল হক এর। তিনি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সমিতি ও সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়ার পোষ্ট গ্রাজুয়েট স্টুডেন্ট সোসাইটি ও মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ স্টুডেন্ট ইউনিয়নের সাবেক প্রেসিডেন্ট ছিলেন ড. ফয়জুল হক। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স ও মাস্টার্স সম্পন্ন করেন ড. ফয়জুল হক। দেশবাসীর প্রত্যাশা দেশে সত্যিকার নির্বাচন হলে ড. ফয়জুল হক বিপুল ভোটে জয়লাভ করে বিএনপির হয়ে সংসদে দেশ ও দেশের মানুষের দুঃখ দূর্দশা দূরীকরণে কাজ করবেন।দেশ ও জাতির কল্যানে অগ্রনী ভূমিকা পালন করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *