এমদাদুল হক মাসুম, ডোমার প্রতিনিধি:

নীলফামারীর ডোমার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রশ্নপত্রে তথ্যগত ভুলে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগন।
সোমবার (১৩ জুন) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভুলে ভরা প্রশ্নপত্রটি ডোমার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অর্ধ বার্ষিক পরীক্ষার অষ্টম শ্রেণির বাংলা(সৃজনশীল) পরীক্ষার। যেখানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম ও ঠিকানা থাকার কথা “ডোমার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ডোমার, নীলফামারী” কিন্তু উল্লেখ রয়েছে ‘ডোমার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, দেবীগঞ্জ, পঞ্চগড়’।
উল্লেখ্য ডোমার শহর থেকে প্রায় ৮ কি.মি. দূরে পার্শ্ববর্তী পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলা। নীলফামারী ডোমারের জায়গায় “পঞ্চগড় দেবীগঞ্জ” উল্লেখ থাকা প্রশ্নে পরীক্ষা হওয়ায় সমালোচনার ঝড় বইছে এলাকায়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডোমার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা লিপি আক্তার বলেন, “এটা প্রিন্টিং মিসটেক। মাত্র ৭ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা নিয়ে আমরা ক্লাসসহ সকল কার্যক্রম পরিচালনা করছিলাম। সামনে এসএসসি পরীক্ষা, সব মিলিয়ে আমরা অনেক ব্যস্ত থাকায় বিষয়টি খেয়াল করিনি, তবে ভবিষ্যতে যেন আর এরকম না হয় এজন্য আমরা সতর্ক থাকবো।
প্রশ্নে ভুলের বিষয়ে অভিভাবক ময়নুল ইসলাম বলেন, এতদিন সুনামের সাথে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু বিগত কয়েক বছর ধরে পড়ালেখা ও ফলাফলের মান নিম্নমুখী। পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে এমন তথ্যগত ভুল সত্যিই দুঃখজনক। ডোমার, নীলফামারীর পরিবর্তে দেবীগঞ্জ, পঞ্চগড় লেখাটা সমুচিত হয়নি। কর্তৃপক্ষ এর দায় কোনভাবেই এড়াতে পারে না।
বিদ্যালয়ের ছাত্রী সহ খোঁজ নিয়ে যানাজায় গত কয়েক বছর ধরে ডোমার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষা দেবীগঞ্জ অলদিনী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রশ্নপত্রে নেওয়া হচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রতিবেদককে অনেকেই বলেন প্রধান শিক্ষিকার দায়ীত্বে অবহেলা ও সরকারী একটি প্রতিষ্ঠানের ভাবমুর্তি নষ্টের জন্য তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া উচিত।
অন্যদিকে, একই দিন ভাইরাল হয়েছে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ অলদিনী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির বাংলা দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষার রচনামূলক প্রশ্নে তথ্যগত ভুল। সেখানে আবার লেখা হয়েছে ডোমার অলদিনী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
#

Leave a Reply

Your email address will not be published.