তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীর তানোরে উপজেলা সমাজ কর্মকর্তার কার্যালয়ে কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন খাঁন ও কর্মচারী আব্দুল হালিমের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় সমাজসেবা কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মাঝে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। এতে ব্যাহত হচ্ছে কার্যালয়ের স্বাভাবিক কর্মকান্ড। ফলে সেবা প্রার্থীদের মধ্যে চরম অসন্তোসের সৃষ্টি হয়েছে। এঘটনায় থানায় জিডি ও কর্মচারিকে বদলি করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত ২ জুন বৃহস্প্রতিবার কার্যালয়ের ইউপি কারিগরি প্রশিক্ষক আব্দুল হালিম একটি ফাইলের ভুল সংশোধনের জন্য কর্মকর্তার কাছে যান। এসময় কর্মকর্তা তাকে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করে এনিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।
প্রত্যক্ষদর্শী সুত্র জানায়, প্রথমে কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন খাঁন কর্মচারী আব্দুল হালিমকে কিল ঘুষি ও লাথি মেরে ফেলে দেয়। এসময় আব্দুল হালিম উঠে কর্মকর্তাকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মেরে মুখমুন্ডল থেঁতলে দেয়। এনিয়ে কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।সমাজকর্মী আরিফ বলেন, স্যারের ব্যবহার ভাল না কথায় কথায় গালাগালি করেন। সেবাপ্রার্থী প্রতিবন্ধী সামসুল আলম বলেন, এখানকার স্টাফদের ব্যবহার ভাল না, এছাড়াও নানা অনিয়ম-দুর্নীতি জেঁকে বসেছে। এবিষয়ে জানতে চাইলে সমাজসেবা কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন খাঁন বলেন, হাতাহাতি নয় কথা কাটাকাটি হয়েছে। তিনি বলেন, থানায় জিডি ও কর্মচারিকে বদলি করা হয়েছে।
এবিষয়ে জানতে চাইলে ইউপি কারিগরি প্রশিক্ষক আব্দুল হালিম বলেন, তিনি মারেননি তাকেই স্যার কিল-ঘুষি মেরেছে, তিনি বলেন, স্যার পড়ে গিয়ে তার মুখমন্ডলে আঘাত লেগেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.