তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীর তানোরে খাবার হোটেল ব্যবসার আড়ালে অসামাজিক কর্মকান্ড ও গোপণে ভিডিও ধারণের অভিযোগে হোটেল মালিকসহ ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, গুবিরপাড়া গ্রামের পরান সরদারের পুত্র আলম সরদার।তানোর-চৌবাড়িয়া রাস্তার গুবিরপাড়া মহল্লা সংলগ্ন নিজ বাড়িতে। ইসলামী হোটেল এ্যান্ড রেষ্টুরেন্ট করে, ব্যবসার আড়ালে দীর্ঘদিন ধরে অসামাজিক কর্মকান্ড করে আসছেন। এদিকে গত ৫ জুলাই মঙ্গলবার গোপণ সংবাদের সংবাদের ভিত্তিতে থানা পুলিশ আলম সরদারের বাড়ির ইসলামী হোটেল এ্যান্ড রেষ্টুরেন্টে অভিযান চালিয়ে দুই নারীসহ (কলগার্ল)
৪-জনকে আটক করেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত ৫ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে ইসলামী হোটেল এন্ড রেষ্টুরেন্টে অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে পুলিশ অভিযান
চালিয়ে দু’জন নারীসহ ৪ জনকে আটক ও গোপণে ধারনকৃত পর্নোগ্রাফি ভিডিওসহ মোবাইল জব্দ করেছেন। আটককৃতরা হলো গুবিরপাড়া গ্রামের পরান সরদারের পুত্র আলম সরদার, নাটোর জেলার, বাগাতিপাড়া উপজেলার পাকা গ্রামের মাজদার রহমানের পুত্র মারুফ হোসেন এবং রাজশাহীর বসুয়া ও নাটোরের পাকা গ্রামের দুই নারী। তানোর থানা মোড়ের রুচিতা হোটেল মালিক হাজী সালাউদ্দিন সরদারের ছোট ভাই আলম সরদার।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সুত্র জানায়,আলম সরদারকে পুলিশ রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে এ ঘটনায় তার ঘনিষ্ঠ সহচর জনৈক হামেস আলীসহ অনেকের নাম বেরিয়ে আসতে পারে বলে তারা মনে করেন। তানোর থানার অফিসার ইন্চার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, পর্নোগ্রাফি মামলায় মারুফসহ সকল আসামীদের জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.