তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীর তানোরের কলমা ইউনিয়নের (ইউপি) ধনঞ্জয়পুর গ্রামে অসহায় কৃষকের জমি জবরদখলের অভিযোগ উঠেছে। কলমা ইউপির ৩১ নম্বর ধনঞ্জয়পুর মৌজায়, ২ নম্বর খতিয়ানভুক্ত, ১৬১ ও ৭ নম্বরসহ ৪ দাগে মোট ২ দশমিক ৭ একর ফসলি জমি রয়েছে। স্থানীয়রা জানান, ভুমি অফিস থেকে বিগত ২০১২ সাল পর্যন্ত্য ভিপি লিজ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে
এসব জমি ভোগদখল করে আসছেন ধনঞ্জয়পুর গ্রামের মৃত কুতুব উদ্দিন শেখের পুত্র ভেদু শেখ দিগর।
এদিকে এ ঘটনায় পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে, ধনঞ্জয়পুর গ্রামের ভেদু শেখ ও শাহীন বলেন, বিগত ২০১২ পর্যন্ত ভিপি লিজ নিয়ে নিয়মিত কর পরিশোধ করে এসব জমি তারা শান্তিপুর্ণভাবে ভোগদখল করে আসছেন। তারা বলেন,এসব জমি নিয়ে আদালতে মামলা হলে তারা তিনটি ডিগ্রিও পেয়েছেন।
কিন্ত্ত একই গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের কন্যা জেসমিন আরা গ্রামের প্রভাবশালী ফজলুর রহমান ও রোকনুজ্জামান রোকনের মদদে জমি জবরদখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এমনকি বহিরাগত ভাড়াটিয়া লাঠিয়াল বাহিনী নিয়ে জমি জবরদখল করতে গিয়ে গ্রামবাসির বাধার মুখে পালিয় এসে তাদের বিরুদ্ধে তারা থানায় মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।
অপরদিকে রোকনুজ্জামান রোকন বলেন, বিগত ৬২ সালের রেকর্ড মুলে তারা তাদের কাছে থেকে জমি কিনে নিয়েছেন এবং রেকর্ড সংশোধনের মামলা করেছেন। এছাড়াও তাদের আদালতের পক্ষে আদালতের ডিগ্রী আছে। তিনি আরো বলেন, জমি নিয়ে থানায় বসার কথা কথা থাকলেও তারা বার বার সময় নিয়ে কালক্ষেপণ করছে, আসলে তাদের কাছে কোনো কাগজপত্র নাই। তারা ভাড়াটিয়া লোক নিয়ে এসে জমি দখলের চেষ্টা করছে, তিনি বলেন, আগামি ২২ জুন উভয় পক্ষের কাগজপত্র নিয়ে থানায় বসার কথা আছে।
এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামের এক বয়োজৈষ্ঠ ব্যক্তি জানান, ফজলুর রহমান ভুমিগ্রাসী শ্রেণীর লোক, সে টাকার জোরে নিরহ কৃষকের জমি জবরদখলের চেষ্টা করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.