সিরাজগঞ্জ পৌর শহরের এসবি রেলওয়ে স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলামকে দুর্নীতি-অনিয়মের দায়ে ম্যানেজিং কমিটি সাময়িক বহিষ্কার করেছে।

এতে ওই শিক্ষক ক্ষুব্ধ হয়ে তার কাছে টিউশনি পড়ুয়া কতিপয় ছাত্র-ছাত্রী ও বহিরাগতদের নিয়ে স্কুলে হামলা চালিয়ে চেয়ার-টেবিল, ফ্যান ভাঙচুর করে ও বিভিন্ন মালামাল লুটপাট করেছে। এ ঘটনায় স্কুলের অধ্যক্ষ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক আরিফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে।

শিক্ষকরা জানান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে আদায়কৃত অর্থ স্কুল ফান্ডে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ, প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র শিক্ষক একরাম হোসেনের সঙ্গে মারমুখী আচরণ ও পেশাগত অসদাচরণের অভিযোগে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহম্মদ গত ২২ তারিখে সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করেন।

বরখাস্তের চিঠি পাওয়ার পরই শিক্ষক আরিফুল ইসলাম স্কুলের অধ্যক্ষের সঙ্গে অশালীন আচরণ, ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ নানাবিধ ষড়যন্ত্র শুরু করেন। এরই প্রেক্ষিতে ১২ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় কিছু বহিরাগত ও তার কাছে প্রাইভেট পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে স্কুলে প্রবেশ করে এবং শিক্ষক আরিফুলের নির্দেশে স্কুলের চেয়ার-টেবিল, গেট ও দরজাসহ অন্যান্য মালামাল ভাঙচুর করে। এতে প্রায় প্রতিষ্ঠানের দেড় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়।

এ ছাড়াও ৬ হাজার টাকা মূল্যের দুটি সিলিং ফ্যান চুরি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহম্মাদের পরামর্শে স্কুলের অধ্যক্ষ আশরাফুল ইসলাম বাদী হয়ে আরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবির জানান, শিক্ষক আরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে ভাঙচুর ও ফ্যান চুরির অভিযোগে মামলা হয়েছে। এ মামলায় পুলিশ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!