মাহবুব আলম রানা,

নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার ২নং মথুরাপুর ইউপি চেযারম্যান মোঃ মাসুদ রানা | তিনি প্র্যাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় হতে বিএ (সেম্মান) এম এ ৷ তিনি কোনদিন কোন সরকারী চাকুরীতে আবেদন করেন নি ৷ সারাজীবন মানুষের জন্য রাজনীতিকে বেছে নিয়েছেন ৷

তিনি ২০২১ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোটে বিজয়ী হন ৷
বিজয়ী হওয়ার পর থেকেই তিনি বিভিন্ন ভিলেজ পলিটিক্সের শ্বিকার বলে তিনি জানান।
তিনি ক্ষমতা গ্রহন করেছেন মাত্র ৫ মাস আগে ৷
তিনি জানান এলাকাবাসী তাকে খুব ভালবাসেন ৷
ইউনিয়ন ডিজিটাল কেন্দ্রের নারী উদ্যেক্তা জাকিয়া সুলতানা ৷ তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত ৷ তার প্রচুর টাকার দরকার হয় চিকিৎসা ব্যায়ে ৷

এই কারনে ডিজিটাল সেন্টারে আগত ব্যক্তিদের জন্মসনদ ও বিভিন্ন ওজুহাতে বেশি টাকা নিতেন ৷
এই অভিযোগ চেযারম্যান পাওয়ার পর আত্র ইউপির অফিস সহকারী কে জন্মসনদ ও কিছু সাধারন কাজ মৌখিকভাবে দেখভালের অনুমতি প্রদান করেন ৷
এতে উদ্যেক্তা জাকিয়া সুলতানা ক্ষিপ্ত হয়ে যান ৷
কারণ জনগন তার কাছে না গিয়ে অফিস সহকারীর কাছে গিয়ে সঠিক ভাবে সরকারী নিয়মে নির্ধারিত ফিতে জন্ম সনদ ও প্রয়োজনীয় সেবা পেতে থাকে। একুশে সংবাদের সাক্ষাৎকারের সময় এসব জানান৷
আর তিনি আরও জানান ঐ মহিলার কাছে কেউ কোন দিন টাকা চাইবে এটা অসম্ভব ৷
আর আমি ২লাখ টাকা চাঁদা চেয়েছি তাও অবাস্তব।
অত্র ইউপির ২নং ওয়ার্ডের সদস্য রেজাউলের বক্তব্য ও একই ৷
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় প্রায় একই চিত্র ৷
ঐ ইউ পির পাশে মুদিদোকান পরিচালনা করেন মোঃ বাচ্চু, তিনি বলেন ঐ উদোক্তা টাকা ছাড়া কিছু্ই বোঝেন না ৷
আরো কয়েকজন এলাকাবাসী একই অভিযোগ করেন ঐ নারী উদ্যোক্তার বিরুদ্ধে৷
ঐ ইউনিয়ের বাসিন্দা সামসুল ভাই একজন শিক্ষক | তিনি একবাক্যেই বলেন ঐ মহিলা বহুরূপী আর মাসুদ চেয়ারম্যান একজন সৎ শিক্ষিত ও বিনয়ী মানুষ ৷
তার বিরুদ্ধে এগুলো অপপ্রচার ছাড়া আর কিছুই নয় ৷

সরেজমিনে জানা যায় ইটালী প্রবাসী রিপন মুন্সী বাড়ী নোয়াখালী জেলায় সেই জাকিয়ার দুসস্তানের জনক৷ তিনি দুই কন্যা ভালবাসা থেকে বঞ্চিত। তার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ও ঐরকম তথ্যই প্রদান করেন ৷

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জাকিয়া সুলতানার সাথে যোগযোগ করা হয়নি। তবে জানা গেছে তিনি জেলা প্রশাসক বরাবর একটি অভিযোগপত্র দিয়েছেন ৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!