মোঃ ইকবাল মোরশেদ স্টাফ রিপোর্টার।

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলায় ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে।
তবে পুলিশও ভুক্তভোগীর পরিবার তাৎক্ষণিক ঘটনার কোন কারণ জানাতে পারেনি।

গুরুত্বর আহত ব্যক্তির নাম মোঃ কলিম উদ্দিন (৬১) সে গাইবান্ধা জেলার ইছামত এলাকার আইনুদ্দিনের ছেলে এবং সোনাইমুড়ী উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের দানেশ মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া। তিনি পেশায় একজন ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী।
বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ শাকতলা গ্রামের নতুন বেপারী বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

পরে স্থানীয় লোকজন তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক বছর যাবত মোঃ কলিম উদ্দিন সোনাইমুড়ী উপজেলায় ভাঙ্গারি মালের ব্যবসা করে আসছেন। বুধবার সকালে নিজের ভ্যান নিয়ে দক্ষিণ শাকতলা গ্রামে যান কলিম। সেখানে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নতুন বেপারী বাড়ির সামনে স্থানীয় মোঃ আব্দুল মন্নানের ছেলে মোঃ জুয়েলের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে কথাকাটাকাটি শুরু হয় ।
একপর্যায়ে জুয়েল ছুরি দিয়ে কলিমের গলায় ও পুরুষাঙ্গে জখম করে পালিয়ে যায়।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ হারুন অর রশিদ বলেন, বিষয়টি শুনেছি। আহত বৃদ্ধার অপারেশন চলছে। পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছে। লিখিত অভিযোগের আলোকে পরবর্তীতে আইনগত প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!