মোঃ ইকবাল মোরশেদ স্টাফ রিপোর্টার।

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী পৌর শহরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভুল সিজারিয়ান অপারেশনে নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার সত্যতা পেয়ে হাসপাতালটি বন্ধ করে দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।
নোয়াখালী সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার মঙ্গলবার (১৪ জুন) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তিনি বলেন, রোববার (১২ জুন) রাতে সেনবাগ উপজেলার কেশারপাড় ইউনিয়নের খাজুরিয়া উত্তরপাড়া গ্রামের মোঃ আলাউদ্দিনের স্ত্রী সন্তান সম্ভবনা রোকসানা আক্তারকে সোনাইমুড়ীর আল খিদমাহ জরুরি সেবা ও নরমাল ডেলিভারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে রাতে অনভিজ্ঞ চিকিৎসক দিয়ে গৃহবধূর সিজারিয়ান অপারেশনের সময় নবজাতকের মৃত্যু হয় এবং গৃহবধূর জরায়ু,পায়ুপথ কেটে ফেলার অভিযোগ ওঠে।
সিভিল সার্জন আরও বলেন, অভিযোগ পেয়ে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডাক্তার খালেদা আক্তারকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।
সোমবার দুপুরে তদন্ত কমিটি ওই হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় নবজাতকের মৃত্যু ও প্রসূতির অবস্থা আশংকাজনক হওয়ার সত্যতা পান।
পরে বিকেলে হাসপাতালটি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার ইসরাত জাহান বলেন,
সোনাইমুড়ীর আল খিদমাহ নামের বেসরকারি হাসপাতালে ভুল অপারেশনে নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশে তদন্তে সত্যতা পেয়ে হাসপাতালটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ হারুনুর রশিদ বলেন, রোগীর অভিভাবকের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.