হাকিকুল ইসলাম খোকন ,সিনিয়র প্রতিনিধিঃ

 বাঙ্গালী জাতীর গর্বের পদ্মা সেতু উদ্ভোধন হয়েছে গত ২৫ জুন। স্বাধীনতা সংগ্রামের পর বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় স্থাপনা হচ্ছে পদ্মা সেতু। তাই তো এই সেতুকে ঘিরে বাংলাদেশের ১৮ কোটি মানুষের যেমন উচ্চাসের কমতি ছিলো না তেমনি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের শিরোনামে প্রকাশ পেয়েছে বর্তমান সরকারের দৃঢ়তার কথা। খবর বাপসনিউজ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক অনাড়ম্ভর অনুষ্ঠান করে উদ্ভোধন করেন কোটি মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু। ঐতিহাসিক এই দিনটিকে স্বরনীয় করে রাখতে দেশের বাইরে বিভিন্ন দূতাবাসেও প্রবাসীদের সাথে নিয়ে উৎসব আনন্দ করতে ২০ লক্ষ টাকা বাজেট দিয়েছেন বর্তমান সরকার। ইউরোপের বিভিন্ন দূতাবাসে অত্যন্ত ঝাকঁজমক ও উৎসবমূখর পরিবেশে উদযাপিত হলেও ফ্রান্সের প্যারিস্থ্য বাংলাদেশ দূতাবাস নিরব ভূমিকা পালন করেছে।

তবে প্যারিসে পূর্ব নির্ধারিত জামাত বিএনপি কর্তৃক আয়োজিত ১৫ ইউরো টিকিটের বিনিময়ে ফ্রাংকো বাংলা ফ্রেন্ডশীপ ফেষ্টিভ্যালে দূতাবাস পদ্মা সেতুর ৪ মিনিটের প্রমো দেখিয়ে বাজেটের সম্পূর্ণ অর্থ আত্বসাত করছেন বলে অভিযোগ করেছে ফ্রান্স আওয়ামী লীগ নেতা আতিকুজ্জামানসহ আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা কর্মীরা।
আতিকুজ্জামানের ফেইবুক স্ট্যাটাস টি হুবুহু.. (ফ্রান্সে বি.এন.পি জামাতের অর্থায়নে তত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে পদ্মা সেতু উদ্ভোধনী ঐতিহাসিক অনুষ্ঠান- দাওয়াত পেয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতারা সহ কমিউনিটির অনেকেই-টিকেট ১৫€ কিসের আলামত বুঝতে চেষ্টা করছি)।
আওয়ামী লীগের একাংশ অনুষ্ঠানে দাওয়াত পেলেও তাদেরকে যথেষ্ঠ সম্মান করা হয় নি বলে অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই তারা অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করেন। এদিকে আওয়ামী লীগের আরেকটি অংশ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছে জামাত বিএনপির এই অনুষ্ঠানে যারাই অংশ গ্রহণ করেনি তারাই আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মী।
তাছাড়া প্রত্যেক্ষদর্শী অনেকেই জানান, রাষ্ট্রদূত বক্তিতা করার সময় বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার গুণকির্তন করার সাথে সাথেই অনুষ্ঠানে আসা বিএনপি কর্মী সরকার বিরোধী স্লোগান দিতে থাকে পরক্ষণেই রাষ্ট্রদূত বক্তিতা শেষ করে মঞ্চ ত্যাগ করেন।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাষ্ট্রদূতের ফ্রান্স বিএনপির সাধারন সম্পাদক এম এ তাহেরের সাথে গোপন কথোপকথনের একটি ছবি ভাইরাল হয়।

উল্লেখ্য রাষ্ট্রদূত এম তালহা, লন্ডন দূতাবাসে থাকা কালে লন্ডন বিএনপি দূতাবাসে হামলা, বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাংচুর করে। যা কিনা তালহা’র যোগ সাজশে হয়েছে বলে অনেকেই মনে করেন।

এছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন জাতীয় ও অনলাইন গণমাধ্যমে ফ্রান্সে দূতাবাসের সাথে জামাত বিএনপির সখ্যতার খবর প্রকাশ পাওয়ায় এ নিয়ে কমিউনিটিতে ক্ষোভে পুষছেন স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তির প্রবাসী বাংলাদেশীরা। তারা দ্রুত পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং রাষ্ট্রদূতকে অপসারেনর দাবি তুলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!