বাগমারা প্রতিনিধি :
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার শ্রীপুর গ্রামে একটি পান’বরজে কাজ করতে গিয়েছিলেন বৃদ্ধ মুনসুর রহমান (৬৩)। কিছু বুঝে ওঠার আগেই পায়ে কামড় ধরে ক্ষুধার্ত একদল শিয়াল। নিজেকে রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে শেষমেষ প্রানে বেঁচে যান ওই ব্যক্তি। ততক্ষণে ক্ষত-বিক্ষত হয়েছে পা’সহ শরীরের বিভিন্ন অংশ। মুনসুর রহমান কে বাচাঁতে গিয়ে তার মতো আরও ২৫ জন একে একে শিয়ালের আক্রমণের শিকার হয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল আনুমানিক ৭ ঘটিকার সময় পান বরজে পান ভাংতে গিয়ে হটাং শিয়ালের আক্রমণে পড়েন রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের শ্রীপুর স্কুল পাড়া গ্রামের লোকজন।
আহতরা হলেন,শ্রীপুর স্কুল পাড়া গ্রামের মুনসুর রহমান (৬০), আবদুল গাফফার (৬১), শহিদুল ইসলাম (৩০), নজরুল ইসলাম (৫৪), আমিনুল ইসলাম (৪০), মকবুল হোসেন (৬০), নাজিম উদ্দিন (৪৪), রুহুল আমিন প্রমূখ।আহত আমিনুল ইসলাম বলেন, পানবরজে শিয়াল থাকে। তাঁরা কোনো দিন সেগুলোকে মারেননি। শিয়ালও কোনো দিন আক্রমণ করেনি। দিনের বেলায় তাঁরা পানবরজে নির্বিঘ্নে কাজ করেন। তবে রাতের বেলায় শিয়ালগুলো আহারের জন্য বের হয়। কেন আজকে এভাবে কামড়ানো শুরু করল, তা বুঝতে পারছেন না।এ ব্যপারে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সাফিয়া সুলতানা মুঠোফোনে বলেন, শিয়ালের আক্রমণের শিকার লোকজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাঁদের ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সিটি করপোরেশন এলাকা ছাড়া ভ্যাকসিন না থাকায় আক্রমণের শিকার রোগীদের ভ্যাকসিন দেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে সবাই সুস্থ আছেন।
উপজেলার উপসহকারী প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, এরকম খবর তাঁরা পাননি। বন্য প্রাণীকে মেরে ফেলা ঠিক নয়। তবে খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে কেন এমন ঘটনা ঘটেছে। সবাইকে সাবধানে চলাচলের পরামর্শ দেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!