বাগমারা প্রতিনিধিঃ
বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের মাদক বিরোধী অভিযানে গোয়ালকান্দি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি সোহেল রানার বাড়ি থেকে ১৮ পিছ ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক ৮ ঘটিকার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রামরামা হ্যাচারী মোড়ে মাদক বিক্রয়ের সময় নাসির উদ্দীন নামে একজন কে আটক করে। নাসির উদ্দীন গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের চেউখালি গ্রামের সাখাওয়াত এর ছেলে।
হ্যাচারী মোড়ে জনসাধারণের সামনে নাসিরের দেহ তল্লাশি করে ৫ পিছ ইয়াবা ও ১ বোতল ফেন্সিডিল সহ তাকে আটক করে পুলিশ।
নাসিরের দেওয়া তথ্য মতে তাহেরপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক জিলালুর রহমান নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স গোয়ালকান্দি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতির বাড়িতে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কাছে থাকা একটি ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যায় যুবলীগ সভাপতি সোহেল রানা। এসময় সোহেল রানার ফেলে দেওয়া ব্যাগ থেকে ১৮ পিছ ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। পলাতক সোহেল রানা (৩৬) চেউখালির চন্ডিপুর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে।

এলাকাবাসির দেওয়া তথ্য ও এজাহার সুত্রে জানাযায়,সোহেল রানা দীর্ঘ দিন থেকে ফেন্সিডিল ও ইয়াবার ব্যাবসা করে আসছিলেন। বাগমারা উপজেলা ও পাশের নাটোর জেলা থেকে মাদকসেবীরা মাদক সেবন করতে আসতো সোহেল রানার কাছে। নাসির কে দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় হোম ডেলিভারি দিয়ে আসছিলো দীর্ঘ দিন থেকে।
ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি হওয়ার ভয়ে কেউ কিছু বলতেন না। ইতোমধ্যে যুবলীগ সভাপতি সোহেল রানার মাদক বিক্রয়ের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

এ বিষয়ে গোয়ালকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বকুল খরাদি বলেন,বিষয়টি শুনেছি। একজন ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মাদকের সাথে যুক্ত সত্যিই অবাক করার মতো। দূত তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের গ্রেফতারের জোর দাবি জানাই। দোষী প্রমানিত হলে এমন ব্যাক্তি যেন রাজনীতিতে স্থান না পায় উপজেলা যুবলীগ কাছে এটাই চাওয়া।

এ ব্যপারে তাহেরপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক জিলালুর রহমান বলেন, নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাসির উদ্দীন নামে একজনকে রামরামা হ্যাচারী মোড়ে মাদক সহ গ্রেফতার করা হয়েছে। আটক নাসিরের দেওয়া তথ্যমতে সোহেল রানার বাড়িতে অভিযানে গেলে পুলিশের উপস্থিতি জানতে পেরে একটি ব্যাগ ফেলে দিয়ে সোহেল রানা পালিয়ে যায়। এসময় তার ফেলে দেওয়া ব্যাগ থেক ১৮ পিছ ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। পলাতক সোহেল রানা কে গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। নিয়মিত মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে। এসময় তিনি আরো বলেন মাদক ছাড়ুন না হয় বাগমারা ছাড়ুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!