মোঃ আল আমিন, সিংড়া নাটোরঃ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, ১৫ ই আগষ্ট ঘাতকদের বিচার হোক এটা জিয়া কিংবা বিএনপি জামায়াত চায়নি। এজন্য বিএনপি কালো আইন তৈরি করেছিলেন। প্রতিযোগিতা থাকতে হবে তবে প্রতিহিংসা নয়। পদ পদবী পেলেই কি নেতা হওয়া যায়। নেতা হতে হলে পরিশ্রমী হতে হবে। পরিশ্রমী কর্মীরাই নেতা। পরিশ্রম, সততা আপনাকে নেতা বানাবে।

পলক আরো বলেন, ২০০৮ সালে আমি যখন মনোনয়ন চেয়েছিলাম। তখন আমি বয়সে তরুন। সেদিন আপনারা আমাকে নেতা বানিয়েছেন। প্রায় ৫০ হাজার ভোটে আমাকে বিজয়ী করেছিলেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মনোনয়ন দিলে ভুল করেননি। তাঁর প্রমান আপনারা দিয়েছেন। আমি নিজেকে নেতা ভাবি না। আমি একজন কর্মী মনে করি। আজীবন আওয়ামীলীগের একজন ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে নিজেকে জনগনের সেবায় নিয়োজিত রাখবো।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি সরকারের সময় মানুষের উপর জুলুম নির্যাতন করেছে। বাড়িতে আগুন দিয়ে লুটপাট করে ডাকাতি মামলা দিয়েছে। মানুষ শান্তিতে ঘুমাতে পারেনি।
আর আমরা সিংড়াকে উন্নত জনপদে পরিনত করেছি। সিংড়ায় হাইটেক পার্ক হচ্ছে। প্রতিটি জনপদে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে।

প্রতিমন্ত্রী সোমবার দুপুর ১১ টায় সিংড়া গোলই আফরোজ সরকারী কলেজ মাঠে উপজেলা ও পৌর যুব মহিলা লীগের কাউন্সিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি এডভোকেট মানসী ভট্টাচার্য এর সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন
কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল, কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি, সংসদ সদস্য আদিবা আনজুম মিতা, সংসদ সদস্য খোদেজা নাসরিন আক্তার হোসেন জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি শাহানা আফরোজ শিল্পী, সাধারণ সম্পাদক মেরিনা জাহান মীম, উপজেলা আওয়ামী মহিলা লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শামিমা হক রোজি সহ আরো অনেকে।

কাউন্সিলে উপজেলা সভাপতি খাদিজা খাতুন, সাধারণ সম্পাদক জ্যোতি সরকার, পৌর সভাপতি শাবানা খাতুন ও সাধারণ সম্পাদক সাজনিন সাথী কে করে কমিটি ঘোষনা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.