নরসিংদী প্রতিনিধি ঃ

নরসিংদী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের এডি মানিক দেবনাথ , নওরিন , মাসুম , নাইট গার্ড রাশেদ গং দীর্ঘদিন যাবৎ বি-বাড়িয়া জেলার নবীনগর বাঞ্ছারামপুর এলাকার পাসপোর্টৈর দালাল মানব পাচারকারী মনিরের যোগসাজশে অতিরিক্ত অর্থ নিয়ে চ্যানেল ফি-এর মাধ্যমে নরসিংদী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে পাসপোর্ট গ্রহণ করছেন এবং বিশেষ চিহ্ন থাকে মনিরের পাসপোর্টের ফাইলের সাথে আর এ সকল ফাইল জমা নেন নাইট গাট রাশেদ।

একটি বিশ্বস্ত সূত্রে সংবাদ পেয়ে নরসিংদী সদর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফাইন্যান্সিয়াল পোস্ট ও ক্রাইম ম্যাগাজিন অপরাধ জগতের সাংবাদিক মাসুদ রানা বাবুল সহ অন্যান্য সাংবাদিকরা সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে বাঞ্ছারামপুর নবীনগর এলাকার মনিরের ২০/২৫ জন পাসপোর্ট করতে আসা লোক লাইনে পাওয়া যায় ।তাদের সাথে আলাপ কালে, মমিন , জাহাঙ্গীর , মামুন অতিরিক্ত অর্থ দিয়ে চ্যানেল ফির মাধ্যমে পাসপোর্ট জমা দিতে দেখতে পাই আমাদের এ প্রতিবেদক। মানব পাচারকারী পাসপোর্টের দালাল মনিরের বাঞ্ছারামপুর নবীনগর এলাকার সকল পাসপোর্ট জমা নিচ্ছে নাইটগার্ড রাশেদ ।

এ বিষয়ে পাসপোর্ট কাউন্টারে গেলে দেখা যায় , নাইট গার্ড রাশেদ পাসপোর্ট জমা নিচ্ছে তাকে জিজ্ঞেস করলে বলেন এডি সাহেবের সাথে কথা বলেন। এদিকে এডির অনুমতি নিয়ে তার রুমে প্রবেশ করলে তিনি উত্তেজিত হয়ে জানান আপনারা নীচে ভিডিও করছেন কেন আপনারা কিসের সাংবাদিক ? সাংবাদিকদের লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়ে থাকি আপনারা চলে যান। সাংবাদিকরা চ্যানেল ফির মাধ্যমে বি বাড়িয়া _ নবীনগর বাঞ্ছারামপুরের লোকেরা কিভাবে পাসপোর্ট করে জানতে চাইলে তিনি তার ষ্টাফদের ডেকে সাংবাদিকদের ক্যামেরা মোবাইল সিম কার্ড ছিনাইয়া নিবার চেষ্টা কালে সাংবাদিক ও উপস্থিত জনতা প্রতিবাদ করলে পাসপোর্ট অফিসের লোকেরা কেটে পড়ে।

এই বিষয়ে ইংরেজি দৈনিক জাতীয় দৈনিক ও বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল সহ প্রায় পঞ্চাশটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে এবং এই ঘটনায় ঢাকা প্রেসক্লাব, একটা জেলা প্রেসক্লাব বি বাড়িয়া বিএনএফ কেন্দ্রীয় কমিটি সাংবাদিক ইউনিয়ন এবং নরসিংদীর বিভিন্ন উপজেলা প্রেসক্লাব সহ ১৮ টি সংগঠন নিন্দা জানিয়েছেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.