তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীর তানোরের সীমান্তবর্তী
মান্দার বানডুবি হাজী ইসমাইল হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিফল চন্দ্র মন্ডলের বেত্রাঘাতে দুই শিক্ষার্থী গুরুত্বর জখম হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তাদের উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালের জরুরী বিভাগে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এরা হলেন মান্দার ভালাইন ইউপির জামদই গ্রামের মজিদুল ইসলামের পুত্র নাহিদ হোসেন (১৩) ও চকজামদই গ্রামের রুবেল মণ্ডলের পুত্র আইয়ুব আলী (১৫) তারা ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। এঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এদিকে এখবর ছড়িয়ে পড়লে অভিযুক্ত শিক্ষকের অপসারণ ও শাস্তির দাবিতে অভিভাবক-শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। একাধিক অভিভাবক বলেন, শিক্ষক রুপী এই সন্ত্রাসীকে অপসারণ করা না হলে আগামিতে তারা তাদের সন্তানকে ওই স্কুলে পড়াবেন না।
অভিযোগে প্রকাশ গত ২৩ মে দুপুর মধ্যাহ্নভোজ বিরতিতে কিছু ছাত্র হৈ-হুল্লোড় করে সিঁড়ি দিয়ে নিচে নাম ছিলেন। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক বিফল চন্দ্র মন্ডল ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠি হাতে তেড়ে আসে এবং ছাত্রদের এলোপাতাড়ি বেত্রাঘাত করেন। এতে তারা শারীরিক ও মানসিকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। তবে দু’জনের আঘাত গুরুত্বর। আহত ছাত্র আইয়ুব আলী ও নাহিদ বলেন, তারা কোনো হৈ-হুল্লোড় করিনি ক্লাস রুমে বসে ছিলেন, যারা করেছে তারা বাহিরে চলে গিয়েছিল এরপরও প্রধান শিক্ষক আমাদের কোন কথা না শুনে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট বেত্রাঘাত করেছেন। এবিষয়ে জানতে চাইলে বানডুবি হাজী ইসমাইল হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিফল চন্দ্র মন্ড বলেন, প্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা ফেরাতে যা করা দরকার আমি তাই করেছি। এ বিষয়ে মান্দা থানার অফিসার ইন্চার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তবে বিষয়টি শিক্ষা সম্পর্কিত হওয়ায় শিক্ষা কর্মকর্তা এবং ইউএনও মহোদয় বিষয়টি দেখছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.