inbound2221850766154366764

বিশেষ প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার লক্ষনশ্রী ইউনিয়নের আলহাজ্ব জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়ে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৩টা পর্যন্ত প্রায় তিনশত শিক্ষার্থীর রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়।

‘একের রক্ত অন্যের জীবন, রক্তই হোক আত্মার বন্ধন’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে ইউনিয়নের জানীগাঁও গ্রামের কৃতি সন্তান যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগ নেতা ও আলহাজ্ব জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী মো. নাঈম হোসেন এর উদ্যোগে এবং স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংগঠন বাঁধন সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ ইউনিটের সার্বিক সহযোগিতায় এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়

এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন আলহাজ্ব জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিন।

রক্তের গ্রুপ জানতে আসা এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমার রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করালাম। আমি এখন থেকে মানুষকে রক্ত দেব।’

স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংগঠন বাঁধন সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ ইউনিটের উপদেষ্টা আশরাফুল ইসলাম বলেন, রক্ত যেহেতু আমাদের শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ, তাই রক্তের গ্রুপ জেনে রাখাটা খুবই জরুরি। যুক্তরাজ্য প্রবাসী নাঈম হোসেন সেই মানবিক কাজটিই করেছে। তার এ উদ্যোগকে স্বাগত জানাই।

আলহাজ্ব জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জনাব রুহুল আমিন বলেন, পড়াশোনার পাশাপাশি সমাজ উন্নয়ন ও মানবসেবার কার্যক্রমের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নেতৃত্ব বিকশিত হয়। তাদের মধ্যে মানবপ্রেম জাগ্রত হয়। যুক্তরাজ্য প্রবাসী নাঈম হোসেন এর এ কর্মসূচি স্কুলপড়ুয়া শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করবে।’

যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগ নেতা ও আলহাজ্ব জমিরুন নূর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী মো. নাঈম হোসেন বলেন, প্রায় ৩ শতাধিক শিক্ষার্থীর বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়েছে এবং রক্তের গ্রুপ সংগ্রহ করে একটি ডেটাবেজ তৈরি করা হয়। প্রয়োজন হলেই এই ডেটাবেজ থেকে রোগীদের বিনামূল্যে রক্ত দেওয়া হবে।
উপজেলার প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আমার এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে, ইনশাআল্লাহ।’

  • এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংগঠন বাঁধন সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ ইউনিটের উপদেষ্টা জিয়া, মোহাম্মদ আবেদীন, সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ আবু তাহের হিরা, কর্মী মোস্তাক আহমেদ, বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষিকাসহ বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *