জুয়েল আহমেদ :
রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় বোরো ধানের জমিতে সেচের পানি না পেয়ে আত্মহত্যা করা কৃষক অভিনাথ মারান্ডির স্ত্রী রোজিনা হেমব্রমকে একটি বকনা গরু দিয়েছে জেলা প্রশাসন। সোমবার বেলা ৩টায় জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল তাঁর কার্যালয়ের সামনে রোজিনা হেমব্রমের নিকট গরুটি হস্তান্তর করেন। গরু পেয়ে রোজিনা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
রোজিনাকে একটি গরু দেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেছিল বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট) রাজশাহী শাখা। এর পরিপ্রেক্ষিতেই গরুটি দেওয়া হলো। গরু হস্তান্তরের সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কল্যাণ চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার সোহরাব হোসেন ও ব্লাস্টের জেলা সমন্বয়কারী আইনজীবী সামিনা বেগম উপস্থিত ছিলেন। রোজিনার সঙ্গে এসেছিলেন মৃত অভিনাথের ভাবি পার্বতী সরেনও।

গরু হস্তান্তরের সময় জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল বলেন, অভিনাথের মৃত্যুর পর বিষয়টি নিয়ে অনেক কিছুই হয়েছে। কিন্তু কেউ পরিবারটির পাশে দাঁড়ায়নি। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এর আগে জেলা প্রশাসন রোজিনাকে নগদ টাকা দিয়েছিল। এবার গরু দেওয়া হলো। গরুটি লালন-পালন করে রোজিনাকে স্বাবলম্বী হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

উল্লেখ্য বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিএমডিএ) গভীর নলকূপ থেকে সেচের পানি না পেয়ে গত মার্চে একই দিনে বিষপান করেন অভিনাথ মারান্ডি ও তাঁর চাচাতো ভাই রবি মারান্ডি। এতে তাঁদের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় বিএমডিএ’র গভীর নলকূপ অপারেটর সাখাওয়াত হোসেনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার দুটি মামলা করা হয়। পরে পুলিশ সাখাওয়াতের বিরুদ্ধে দুটি মামলারই অভিযোগপত্র দিয়েছে। তিনি এখন কারাগারে রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.