নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজশাহী মহানগরীর উপশহর এলাকায় নির্মিত মহানগরীর প্রথম মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রটি আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভর্চ্যুয়ালি উদ্বোধন করেছেন।

আজ সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরাসরি ছিলেন এবং রাজশাহী মহানগরীর উপশহর মডেল মসজিদে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় রাজশাহীর সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার জিএসএম জাফরউল্লাহ্, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি আব্দুল বাতেন, পুলিশ কমিশনার আনিসুর রহমান, জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিলসহ মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী ইসলামী ফাউন্ডেশনের পরিচালক জালাল আহমেদ বলেন, নবনির্মিত এই মসজিদে একসঙ্গে ১ হাজার ৫০০ মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন। এখানে নারী ও প্রতিবন্ধীদের জন্যও নামাজ এবং ওযুর পৃথক সুব্যবস্থা রয়েছে। এটা শুধু মসজিদ না, ইবাদতের পাশাপাশি একটি ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রও। চার তলা বিশিষ্ট সাড়ে ৪ হাজার বর্গমিটারের মসজিদের দুই ও তিন তলায় রয়েছে মূল নামাজ ঘর। আর প্রথম ও চতুর্থ তলায় রয়েছে ইমাম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ইসলামী বই বিক্রয় কেন্দ্র, অটিজম কর্নার, ইসলামী গবেষণা ও দ্বীনি দাওয়াহ কার্যক্রম, ইসলামি লাইব্রেরি, হেফজ খানা, শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম, দেশি-বিদেশিদের আবাসন ও অতিথিশালা, মরদেহের গোসল ও কাফনের সুব্যবস্থা, ইমাম-মুয়াজ্জিনদের আবাসন। সেই সঙ্গে হজে গমনেচ্ছুদের নিবন্ধন ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের অফিসও রয়েছে এখানে।

রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী হারণ অর রশীদ জানান, রাজশাহীতে মোট ১১টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রথম পর্যায়ে রাজশাহীর পবা ও গোদাগাড়ী উপজেলার মডেল মসজিদ উদ্বোধন করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মসজিদটি নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছিল সাড়ে ১৬ কোটি টাকা। তবে তা নির্মাণে এর চেয়ে তিন কোটি টাকা কম অর্থাৎ ১৩ কোটি টাকা খরচ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!