সোহেল রানা,রাজারহাটঃ


কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলায় রাস্তা নির্মাণে নিম্নমানের নাম্বারবিহীন ইট ও মাটিযুক্ত বালু ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার সাঁকোয়া থেকে রাজমাল্লিরহাট যাওয়ার ০২ কিলোমিটার ওই সড়ক নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয়রা জানান,তাদের দীর্ঘদিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে রাস্তাটি পাকা করার ব্যবস্থা করায় তারা খুবই খুশি। কিন্তু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান রাস্তাটি পাকা করার কাজে সরকারি নিয়ম-নীতি না মেনে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহার করছে।
এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন,রাস্তায় পিকেট ইটের খোয়া ব্যবহারের পরিবর্তে নিম্নমানের খোয়া ব্যবহার করছে। নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের পর উপরে পিকেট ইটের খোয়া ছিটিয়ে তা ঢেকে দেয়া হচ্ছে। নিম্নমানের কাজ করায় স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদ করলেও ঠিকাদারের লোকজন আমলে নিচ্ছে না।

সরেজমিনে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। ট্রাক্টরে নিয়ে আসা ইট পর্যালোচনা করে দেখা যায়,এমনকি ইটে পা দিয়ে চাপ দিলে তা ভেঙে যাচ্ছে। এ বিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বে থাকা লোকজনদের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তারা কথা বলতে নিষেধ আছে জানান।

এলাকাবাসী এলজিইডির কর্মকর্তাদের প্রতি অভিযোগ করে জানান,ঠিকাদারের সঙ্গে তাদের যোগসাজস আছে। এজন্য কেউই মাঠে নেই। ঝুলানো হয়নি কোনো কার্যতালিকার (ওয়ার্ক অর্ডার) সাইনবোর্ড।

এলজিইডির সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইন্জিনিয়ার,আব্দুল খালেক জানান,আমরা অভিযোগ গুলোর ব্যাপারে দ্রুত অবগত করতেছি বলে জানান ওই কর্মকর্তা। আগামীকাল আমরা ওই ইটের ব্যবস্হা নিব।

রাস্তায় পিকেট ইটের খোয়া ব্যবহারের পরিবর্তে নিম্নমানের খোয়া ব্যবহারের ব্যাপারে জানতে চাইলে রাজারহাট উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ সোহেল রানা বলেন,০২ কিলোমিটার ওই রাস্তাটি নির্মাণ করছেন প্রভাতী প্রজেক্ট।আপনার মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পারলাম। আমরা দ্রুত বিষয়টি দেখতেছি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.