এম শাহজাহান মিয়া শেরপুর প্রতিনিধিঃ
শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে লোকালয়ের এক জলাশয় থেকে ৯ ফুট লম্বা একটি অজগর উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের পর রাংটিয়া রেঞ্জের গারো পাহাড়ের গজনী এলাকার বনে এটিকে অবমুক্ত করেছে বনবিভাগ। এর আগে, রোববার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের সারিকালিনগর এলাকার একটি জলাশয় থেকে সাপটিকে উদ্ধার করে জরিনা বেগম নামের এক নারী সাপুড়ে। জরিনা উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের ডেফলাই বেদে পল্লীর শামসু মিয়ার স্ত্রী। জরিনা বেগম জানান, সকাল দশটার দিকে জীবিকা নির্বাহের জন্য এলাকা ঘুরতে বের হন তিনি। পথিমধ্যে সারিকালিনগর এলাকার সড়কের পাশে সেচ পাম্প সংলগ্ন একটি জলাশয়ের পাশে অনেক মানুষের ভিড় দেখতে পান।
এ সময় তিনি ওইখানে গিয়ে দেখেন, একটি অজগর সাপকে মেরে ফেলার চেষ্টা করছে মানুষ। পরে তাদের বুঝিয়ে জলাশয় থেকে নীল রঙের প্লাস্টিকের জালের মধ্যে আটকা থাকা সাপটিকে উদ্ধার করে বেদে পল্লীকে নিয়ে আসেন তিনি।
রাংটিয়া ও গজনী বিট কর্মকর্তা মো. মকরুল ইসাম আকন্দ বলেন, উদ্ধার হওয়া ৯ ফুট লম্বা অজগরটির ওজন ১২ কেজি। লোকালয় থেকে উদ্ধারের পর এটিকে গারো পাহাড়ের বনে অবমুক্ত করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারুক আল মাসুদ বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে অজগরটি উদ্ধারের খবর জানতে পারি। আমি তাৎক্ষণিক অজগরটি অসুস্থ না সুস্থ যাচাইয়ের জন্য প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তাকে নির্দেশ প্রদান করি। পরবর্তীতে অজগরটি সুস্থ থাকায় বন বিভাগের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
তিনি আরও বলেন, আসলে বন্যপ্রাণী পরিবেশের অন্যতম একটি বড় সম্পদ। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় এই সম্পদ সর্বাত্মক ভূমিকা পালন করে। তাই সকল প্রকার বন্যপ্রাণী রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!