রিয়াদুল মামুন সোহাগঃ ‘ভূমি অফিসে না এসে ডিজিটাল ভূমি সেবা গ্রহণ’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ভূমিসেবা জনগণের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দিতে ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সারাদেশের মত সন্দ্বীপেও ১৯শে মে থেকে ২৩শে মে ‘২০২২ইং পর্যন্ত ৫ দিন ব্যাপি উদযাপিত হয় ভূমি সেবা সপ্তাহ।

জনসাধারণের মধ্যে ভূমি অধিকার সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো এবং ভূমি ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা ও গতিশীলতা আনতে দেশে শুরু হয় ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ’।তারই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রামের সন্দ্বীপেও জনগণের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে “ভূমি সেবা সপ্তাহ”।

উপজেলা ভূমি অফিস সন্দ্বীপ এর আয়োজনে সন্দ্বীপে
ভূমি সেবা সপ্তাহ-২০২২ পালনে গতকাল সোমবার শেষ দিন।সন্দ্বীপ উপজেলা ভূমি অফিসে সেবা গ্রহীতাদের মাঝে ভূমি সংক্রান্ত সেবা দিচ্ছেন সহকারী কমিশনার(ভূমি) মোঃ মঈনউদ্দীন সহ ভূমী অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তা বৃন্দ।

উল্লেখ্য যে,দেশের জনসাধারণের মধ্যে ভূমি অধিকার সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো এবং ভূমি ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা ও গতিশীলতা আনতে বৃহস্পতিবার(১৯ মে) শুরু হয়েছে ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ’।ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ২৩ মে পর্যন্ত সারাদেশে এ সপ্তাহ উদযাপন করা হয়েছে।

ভূমি ব্যবস্থাপনায় জনগণের হয়রানি বন্ধে এবং এ সংক্রান্ত সেবা সহজলভ্য করতে এরইমধ্যে সরকার ভূমি সেবাকে জনগণের দোরগোড়ায় নিয়ে যেতে নানা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ হিসেবে তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ঘরে বসেই যেন সাধারণ মানুষ নিজের ভূমি সুরক্ষাসহ অন্যান্য কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারে সেজন্য এক ঠিকানায় সব ভূমি সেবা নিয়ে আসার জন্য স্থাপন করা হয়েছে ‘ভূমি সেবা প্ল্যাটফর্ম’।
ভূমি সেবা খাতে চলতি বছরে যেসব অনলাইন সেবা যুক্ত হয়েছে সেগুলোকে জনগণের মধ্যে ব্যাপক পরিচিত করাতে এবারের ভূমি সেবা সপ্তাহে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে,সেগুলো হলো-

ভূমি সেবা সপ্তাহ ২০২২ উপলক্ষে বিশেষ সেবা দেবে দেশের ভূমি অফিসগুলো ‘ভূমি অফিসে না এসেই ডিজিটাল ভূমি সেবা গ্রহণ’ প্রতিপাদ্যে দেশের ৮টি বিভাগ,৬৪টি জেলা এবং ৫০৭টি উপজেলা,রাজস্ব সার্কেল,ইউনিয়ন ও পৌর ভূমি অফিসে ১৯ মে থেকে ২৩ মে পর্যন্ত ভূমি সেবা সপ্তাহ ২০২২-এর কার্যক্রম চলছে।

‘১৬১২২ নম্বরে কল সেন্টারের মাধ্যমে ভূমিসেবা’ এবং ‘ডাকযোগে ভূমি সেবা’ বিষয় দুটিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে এবার।ভূমি সেবা সপ্তাহে প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ভূমি অফিসে,স্থানীয় সম্মেলন কক্ষে কিংবা সুবিধাজনক স্থানে ক্যাম্প করে সেবা বুথ স্থাপন করা হয়েছে।সেবা বুথে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রযোজ্য ভূমি সেবা দেওয়া হয়েছে,বিভিন্ন ভূমি সেবা বিষয়ে অবহিত করা হবে এবং পরামর্শ সেবা দেওয়া হয়েছে।

জেলা পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবা দিতে বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে-অনলাইন ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন, ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর দেওয়া সংক্রান্ত কার্যক্রম,ই-নামজারির আবেদন গ্রহণ, নিষ্পত্তিকৃত এলএ কেইসের ক্ষতিপূরণের চেক দেওয়া, খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি পাওয়ার আবেদন গ্রহণ ও তাৎক্ষণিকভাবে তা সরবরাহ এবং অনলাইনে মৌজা ম্যাপ ডাক বিভাগের মাধ্যমে সরবরাহ করা ইত্যাদি।

উপজেলা পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবা দিতে বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে-ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন,ই-নামজারির আবেদন গ্রহণ, ভূমিহীনদের মধ্যে বন্দোবস্তকৃত জমির কবুলিয়ত ও দলিল হস্তান্তর,অফিসের প্রবেশমুখে নামজারির প্রবাহচিত্র স্থাপন করার ব্যবস্থা গ্রহণ,নামজারি,জমাভাগ,খারিজ করতে মোট খরচ ১ হাজার ১৭০ টাকা লিখিত সাইনবোর্ড লাগানোর ব্যবস্থা গ্রহণ,প্রদত্ত সেবাসমূহের ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড স্থাপন করার উদ্যোগ গ্রহণ এবং ডিসিআর ও খতিয়ান দেওয়া ইত্যাদি সেবাসমূহ দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ ইত্যাদি।

ইউনিয়ন পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবা দিতে বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে-ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন,অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর দেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে ব্যাপক প্রচার এবং ভূমি সেবা সংক্রান্ত বুকলেট ও লিফলেট বিতরণ ইত্যাদি।

ভালো কাজের জন্য ভূমি কর্মকর্তাদের স্বীকৃতি দেওয়া হবে।এ বছর থেকে প্রতিবছর ভূমি সেবা সপ্তাহে স্বচ্ছ, দক্ষ,জনবান্ধব ও জবাবদিহিমূলক ভূমি সেবা দেওয়া ও বাস্তবায়নে বিশেষ কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ মাঠ পর্যায়ে ভূমি অফিসে কর্মরতদের পুরস্কার দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।অনুপ্রেরণা,উৎসাহ ও উদ্দীপনা যোগানো এবং ভালো কাজের স্বীকৃতি দেওয়ার লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন পদবির গণকর্মচারীকে নিজ পদবির ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কার দেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.