সিরাজগঞ্জে ৮৫৬ গ্রাম হেরোইন রাখার দায়ে দু’জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সাথে আসামিদের ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

মঙ্গলবার (২১ জুন) দুপুরে সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ ফজলে খোদা মো. নাজির এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, উল্লাপাড়ার রামকান্তপুর মধ্যপাড়া মহল্লার মৃত জিতু প্রামানিকের ছেলে লিটন হোসেন ও শিবপুর এলাকার মো. সাইফুল ইসলামের ছেলে সোহাগ আলী। লিটন হোসেন রিফাত পরিবহনের সুপারভাইজার এবং সোহাগ আলী চালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মামলার বিবরনীতে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৯ আগষ্ট গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাবের অভিযানে নাটোর থেকে আসা ঢাকাগামী রিফাত পরিবহনের একটি বাসে তল্লাশী চালানো হয়। এ সময় বাসটির ড্রাইভার ও সুপারভাইজারকে জিজ্ঞাসাবাদ করে র‍্যাব। জিজ্ঞাসাবাদে ড্রাইভার ও সুপারভাইজারের দেখানো বাসের বাংকার থেকে ফিনলে চায়ের প্যাকেটে রাখা ৮৫৬ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়।

পরে র‍্যাবের ডিএডি ইউনুস আলী সলংগা থানায় উদ্ধারকৃত হেরোইনসহ সুপারভাইজার ও ড্রাইভারকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। মোট ৮ জন সাক্ষীর উপস্থিতিতে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় তাদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!