জেলা প্রতিনিধি ঃ
বিশাল সাগরের কোল ঘেঁষে বসবাসকারী চট্টগ্রামবাসী প্রমাণ করলেন তাদের মন সাগরের মতই বিশাল, আর আকাশের মতই উদার। দেশের যে কোন প্রান্তে দূর্যোগময় মুহূর্তে পাশে গিয়ে দাঁড়ায় তাহারা। দেশবাসীর কাছে সেবায় আত্মনিয়োগ করে দেল নিজেদেরকে। এবার সিলেটের বন্যা কবলিত এলাকায় চট্টগ্রাম থেকে কয়েকটি ট্রাক ত্রাণের বহর নিয়ে ছুটে আসলেন দেশের বিখ্যাত স্টিল কোম্পানি সীমা স্টিল রি- রোলিং মিলস লিমিটেড (SARM)। এবং অসহায় মানুষের পাশে এসে অকাতরে বিলিয়ে দিচ্ছেন ত্রাণ সামগ্রী।এতে রয়েছে জরুরী খাদ্য ও আনুষঙ্গিক সব সামগ্রী । ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে সিলেট শহর থেকে গ্রামসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলে চট্টগ্রামবাসীর এই মানবিক সহায়তা কৃতজ্ঞচিত্তে গ্রহন করছেন সিলেটের ক্ষতিগ্রস্থ জনসাধারণ। এই মানবিক কাজে সমন্বয় করছে জনকল্যাণমূলক সংগঠন সিলেট-চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশিপ ফাউন্ডেশনের একঝাঁক তরুণ স্বেচ্ছাসেবক।
দুই দিনব্যাপী এই ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম চলে রবিবার ২৯ মে সুনামগঞ্জের লক্ষ্মণশ্রী জানিগাও গ্রামে। ত্রান সামগ্রী বিতরন শেষে পরে সলিমপুর হাওড় অঞ্চলে। সেখানে পানি বন্দী মানুষের মাঝে নৌকায় করে ত্রাণ নিয়ে বিতরণ করেন এসএআরএম এর কর্মকর্তা ইমন কাবীর, মোঃ জাবেদ, সিলেট চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশিপ ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা সরোয়ার আমিন বাবু, ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক শহীদুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক, মানবতার ফেরিওয়ালা, সাংবাদিক উৎফল বড়ুয়া, ইঞ্জিনিয়ার রানা বড়ুয়া, যুগ্ন আহবায়ক রফিকুল ইসলাম সজীব, আবুল হাসান, মাহফুজুল হক জোহা, মাহিদুল ইসলাম রাজিব, হাসান জামিল, কাহার মিয়া, রইস উদ্দিন সালিম, জসীমউদ্দীন, আখতারুজ্জামান, সেলিম, আব্দুল গনি, মোসাব্বির রিপন, শাহজাহান,শাহাবুদ্দিন, সালেক, আসাদ, গিয়াস , আব্দুল সত্তার, আবু বক্কর প্রমুখ।
এই মানবিক উদ্যোগে উপস্থিত ছিলেন ইস্পাহানি টি লিমিটেড সিলেট এর বিভাগীয় ব্যবস্থাপক মোঃ আনিছুজ্জামান পাটোয়ারী, ডাঃ কনিজ রহিমা রব্বানী কথা। ডাঃ কনিজ এসময় উপস্থিত কয়েকজন রোগীকে ফ্রি চিকিৎসা সেবাও দেন। বিকেলে আরো ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয় জয়কলস উজানীগাঁও প্রাইমারি স্কুল মাঠে বন্যা দুর্গত মানুষের মাঝে।
ইতিপূর্বে ২৮ মে এই ত্রাণ বিতরণ শুরু হয় সিলেট শহরের সোবহানীঘাট থেকে। সিলেট মেট্রোপলিটনের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও সম্প্রতি ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত জনাব পরিতোষ ঘোষ এই ত্রান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য। সিলেটের বন্যাদূর্গত মানুষের জন্য স্টিল শিল্প প্রতিষ্ঠান এসএআরএম জরুরি খাদ্য সামগ্রীর ট্রাক নিয়ে সূদুর চট্টগ্রাম থেকে যেভাবে এসেছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তাদের এই মানবিক উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই। তিনি আরো বলেন,সরকার যথাসময়ে বন্যা দূর্গত সিলেটে প্রয়োজনীয় ত্রাণ সহায়তা দিচ্ছে। তবে সরকারি সহায়তার পাশাপাশি এসএআরএম এর মত বেসরকারি বানিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলো এগিয়ে আসলে সিলেটের এই প্রাকৃতিক দূর্যোগ কাটিয়ে উঠতে সহজ হবে। আমরা চাই সবাই এগিয়ে আসুক এই মহতী উদ্যোগে। সোবাহানী ঘাট আগ্রা সেন্টার থেকে শুরু হয়ে এই ত্রাণ বিতরণ চলে মজুমদার পাড়া, তেররতন, গোয়াইনঘাট সহ আরো কয়েকটি বন্যা দূর্যোগপূর্ণ এলাকায়। এসময় উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও গোয়াইনঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ। এসব এলাকায় প্রায় দেড় হাজারেরও অধিক খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট বিতরণ করা হয়। প্রায় ২০ কেজি ওজনের প্রতিটি ত্রান সামগ্রী প্যাকেটের মধ্যে ছিল চাল,ডাল,চিড়া, চিনি, আলু, পিঁয়াজ, তেল ইত্যাদি। ট্রাক থেকে নামিয়ে দ্রুত এসব প্যাকেট কিছু কাঁধে করে হেটে হেটে এবং কিছু প্যাকেট মিনি পিক-আপ গাড়ী, ভ্যান ও নৌকায় করে বন্যা উপদ্রুত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়া হয়। দুইদিনে সিলেট সুনামগঞ্জের প্রায় দুই হাজার পরিবারকে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
উক্ত বিতরণ কার্যক্রমের সমন্বয় করেন সীমা স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের কমার্শিয়াল ম্যানেজার মো: মাহবুবুল হক, একাউন্টস এক্সিকিউটিভ ইমন কাবির, একাউন্টস এক্সিকিউটিভ মো: জাবেদ। আরো উপস্থিত ছিলেন সিলেট চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশিপ ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মামুন চৌধুরী,সরোয়ার আমিন বাবু, প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক শহীদুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক, মানবতার ফেরিওয়ালা উৎফল বড়ুয়া, যুগ্ম আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার রানা বড়ুয়া, আবদুল আলীম, দিলু বড়ুয়া, আবু জাফর। এই মানবিক কার্যক্রমে একাত্মতা প্রকাশ করে সামিল হয়েছেন সেবা( Serve People) এর পুরবী দাশ, আপন মিত্র সহ সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকগন। সিলেট সুনামগঞ্জ দুইদিন ব্যাপী মানবিক কাজের সমন্বয় সাধন করেন সিলেট-চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশীপ ফাউন্ডেশন, কেন্দ্রীয় কমিটি বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.